বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিংয়ের নামে নির্যাতন বন্ধ করা হবে : শিক্ষামন্ত্রী

বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিংয়ের নামে নির্যাতন বন্ধ করা হবে : শিক্ষামন্ত্রী

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিংয়ের নামে নির্যাতন বন্ধ করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি বলেছেন, দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে র‌্যাগিং বা বুলিংয়ের নামে শিক্ষার্থীদের ওপর নির্যাতন করা হচ্ছে। বুয়েটের একজন শিক্ষার্থীকে প্রাণ হারাতে হয়েছে। এ কারণে বুয়েটের মতো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আজ অস্থির অবস্থা বিরাজ করছে। যেকোনোভাবে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এসব র‌্যাগিং বা বুলিং বন্ধ করা হবে।

বৃহস্পতিবার(১০ অক্টোবর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি (বিইউবিটি) ৪র্থ সমাবর্তন অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী এমন ঘোষণা দেন।

দীপু মনি বলেন, বর্তমানে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অস্থির অবস্থা বিরাজ করছে। এর পেছনে কোথায় আমাদের সমস্যা থেকে যাচ্ছে তা বের করতে হবে। নিজের মত প্রকাশ করায় দেশের শীর্য পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বুয়েটে আবরার নামে একজন শিক্ষার্থী প্রাণ হারিয়েছে। এ ঘটনা আমি শোকাহত, মর্মাহত, ব্যথিত। আবরারের শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান মন্ত্রী।

আমরা যে মূল্যবোধ বিশ্বাস করি তার সঙ্গে এমন ঘটনা যায় না উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিং বা বুলিংয়ের নামে শিক্ষার্থীদের ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করা হয়। এটি একটি বড় সমস্যা, যেকোনোভাবে এটি বন্ধ করা হবে।

তিনি বলেন, র‌্যাগিং বন্ধে সরকারের একার পক্ষে সম্ভব নয়, সভল দলমত নির্বিশেষে এ নির্যাতন বন্ধে একটি সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। পরিবার থেকেও এ বিষয়ে শিক্ষা দেয়ার আহ্বান জানান মন্ত্রী।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে সমাবর্তন বক্তা অস্ট্রেলিয়ার সেন্ট্রাল কুইন্সল্যান্ড ইউনিভার্সিটির সিনিয়র ডেপুটি ভাইস চ্যান্সেলর এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট ল্যালাসটেইর ডসন বলেন, গ্র্যাজুয়েশন করতে আপনাদের জীবনের নানা ধরনের প্রতিকূল সময় পার করতে হয়েছে। গ্র্যাজুয়েশন করে আপনারা পড়ালেখা শেষ করবেন না। মনে রাখবেন তোমাদের জীবনে পড়ালেখার নতুন অধ্যায় শুরু হলো। ভবিষ্যতে সহপাঠী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে নতুনভাবে সম্পর্ক স্থাপন করারও আহ্বান জানান তিনি।

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে মোট ৩ হাজার ১৯২ জনকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি প্রদান করা হয়। কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলেন জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ জন শিক্ষার্থীকে স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়েছে।

সমাবর্তনে আরও বক্তব্য রাখেন বিইউবিটির উপাচার্য অধ্যাপক আবু সালেহ, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. সফিক আহমেদ সিদ্দিক। এ সময় শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc