রাজীবের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদ, চাঁদাবাজি ও দখলদারিত্বের অভিযোগ : র‌্যাব

রাজীবের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদ, চাঁদাবাজি ও দখলদারিত্বের অভিযোগ : র‌্যাব

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তারেকুজ্জামান রাজীবের ক্যাসিনো সম্পৃক্ততার বিষয়টি ফুৎকারে উড়িয়ে দিয়েছে র‌্যাব। তবে তাঁর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদ, চাঁদাবাজি ও দখলদারিত্বের বিস্তর অভিযোগ রয়েছে বলেও জানানো হয়েছে।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল সারোয়ার বিন কাশেম শনিবার (১৯ অক্টোবর) দিনগত রাত সোয়া ১ টার দিকে প্রেস ব্রিফিং এসব তথ্য জানান। এর আগে রাত ১১ টার দিকে রাজধানী বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার চার নম্বর সড়কের ৪০৪ নম্বর একটি বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় আতœগোপনে থাকা ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাজীবকে।

লে. কর্নেল সারোয়ার বিন কাশেম গণমাধ্যমকর্মীদের আরও জানান, রাজীবের বন্ধুর ভাড়ার বাসা থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, তিন রাউন্ড গুলি, ৭ বোতল বিদেশি মদ ও রাজীবের ব্যক্তিগত পাসপোর্ট জব্ধ করা হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে নগদ ৩৩ হাজার টাকাও। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের লাইসেন্স দেখাতে রাজীব ব্যর্থ হয়েছেন।

তিনি জানান, বাসা ভাড়া নেওয়া রাজীবের বন্ধু দেশের বাইরে থাকায় তাকে পাওয়া যায়নি। গত ১৩ অক্টোবর থেকে এ বাড়িতেই আত্মগোপন করেছিলেন রাজীব।

রাজীবকে নিয়ে মোহাম্মদপুরের বাসায় র‌্যাব
এদিকে, গ্রেফতারকৃত ওয়ার্ড কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজীবকে সঙ্গে নিয়ে তাঁর মোহাম্মদপুরের বাসা ও অফিসে র‌্যাব অভিযান চালাবে বলে জানিয়েছেন লে. কর্নেল সারোয়ার বিন কাশেম। তিনি জানান, ইতোমধ্যেই একটি মাইক্রোবাসে করে রাজীবকে সেখানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

দেখা গেছে, রাজীবের মোহাম্মদপুরের বিলাসবহুল ডুপ্লেক্স বাড়ি ঘিরে রেখেছে র‌্যাব সদস্যরা। রাত ১১ টা থেকে তাঁরা পুরো বাড়িটিকে ঘিরে রেখেছে। গত ক’দিনে আগে একবার এ বাড়িতে এসেছিলেন রাজীব, এমন তথ্য জানিয়েছে দায়িত্বরত র‌্যাব সদস্যরা।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc