শিরোনাম:
সখীপুরে এমপি জোয়াহের ১২’শ  শ্রমজীবী মানুষ‌কে খাদ্য সামগ্রী দিলেন সখীপুর পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে খাদ্য সহায়তা করলেন জাহাঙ্গীর তারেক সখীপুরে সাজ্জাত হোটেলের পক্ষ থেকে হত দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য বিতরণ টাঙ্গাইলে যুবদলের পক্ষ হতে হতদরিদ্র’দের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ পুলিশের বিরুদ্ধে ‘গুজব’ না ছড়িয়ে সহযোগিতার আহ্বান | দৈনিক প্রথমকণ্ঠ সখীপুর ব্লাড ডোনেশন ক্লাবের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কবিতা “একমুঠো ভাত” কলমযোদ্ধা তুলোশী চক্রবর্তী | দৈনিক প্রথমকণ্ঠ করোনায় মারা গেলেন কাইশ্যা / দৈনিক প্রথমকণ্ঠ সখীপুরে ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ফেরদৌসের ব্যক্তি উদ্যোগে ৩২০জনের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ গুজবে কান দিবেন না, আসল ঘটনা জানুন
জিয়ার এক বীর সেনার নাম আশরাফ পাহেলী

জিয়ার এক বীর সেনার নাম আশরাফ পাহেলী

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রথম কন্ঠ :১৯৮১ সালের ৩০ মে শহিদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জানাজায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে পথ চলা।

১৯৮৫/৮৬ সালে সরকারী এম এম আলী কলেজ ( কাগমারি কলেজ) ছাত্র সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসের বিরূদ্ধে শক্ত অবস্হান গ্রহন করে সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করে কলেজ ক্যাম্পাসে সহ অবস্হানের পরিবেশ সৃষ্টি করে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের প্যানেল হামিদ-বিদুৎ পরিষদকে ফুল প্যানেল বিজয়ী করার মূল নায়ক তৎকালীন তরুণ ছাত্র নেতা আশরাফ পাহেলী।

একটি সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান আশরাফ পাহেলী।

তৎকালীন সময়ে ছাত্রদলের আঞ্চলিক কমিটির নেতৃত্বে থাকা আশরাফ পাহেলী স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলন চলাকালীন সময়ে টাংগাইল সদর থানা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক,পরবর্তীতে একই কমিটির আহবায়ক, পর্যায়ক্রমে জেলা ছাত্রদলে সহ-সভাপতি,সিনিয়র সহ-সভাপতি,ভারপ্রাপ্ত সভাপতি, জেলা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক, সাধারণ সম্পাদক, আহবায়ক, জেলা বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক,সাংগঠনিক সম্পাদক।

রাজনৈতিক জীবনে অসংখ্য মিথ্যা মামলার আসামী হয়ে বারবার কারা নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে।

২০০৭ সালের ১/১১ সরকারের সময় উনার বাড়িতে সেনা অভিযান চালানো হয়,উক্ত অভিযানে তাকে ধরতে না পেরে তার বড় ভাইয়ের উপর চালানো হয় অমানুষিক নির্যাতন,তাকে ওযু, নামাজ, কালেমা পর্যন্ত পড়ানো হয় হত্যা করার জন্য, উনার বৃদ্ধ বাবার অনুরোধে প্রাণ ভিক্ষা দেয় সেনাবাহিনী ।

সর্বশেষ ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশব্যাপী বর্তমান সরকার যে গায়েবী মামলা ও নির্বিচারে গণগ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানোর মহোৎসব চালিয়ে ছিল সেটির অংশ হিসেবে আশরাফ পাহেলী ও তার ৩ ভাই,২ ভাতিজা,১ ভাগিনা সহ তার পরিবারের মোট ৮ জনকে এই সরকার গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়ে ছিল।

যেটি বাংলাদেশের বিরল ঘটনা।বর্তমানে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে জাতীয়তাবাদী যুবদল টাংগাইল জেলা শাখার আহবায়ক এর দায়িত্ব পালন করে আসছেন এই নেতা।

যিনি একাধারে রাজপথের আন্দোলন ও সংগঠনকে গতিশীল করার লক্ষে সকল প্রকার কৌশল নিয়ে মাঠে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।যিনি ইতোমধ্যে ধৈর্য,ত্যাগ আর নির্যাতিতের মূর্ত প্রতীক হয়ে উঠেছেন।

তার ত্যাগ,ধৈর্য আর সাংগঠনিক দক্ষতা সারা টাংগাইলে অনুকরণীয় হয়ে উঠেছে,তিনি নেতা-কর্মীদের অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। শত ষড়যন্ত্রকে মোকাবেলা করে এগিয়ে চলা এক বীর সেনার নাম আশরাফ পাহেলী।

আশরাফ পাহেলী সম্পর্কে আলাল সাহেবের কিছু কথা।

 

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc