সখীপুরে ভাইয়ের ছুরির আঘাতে মা, বাবা, ভাই আহত

সখীপুরে ভাইয়ের ছুরির আঘাতে মা, বাবা, ভাই আহত

সখীপুর(টাঙ্গাইল)প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের সখীপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক ভাইয়ের ছুরির আঘাতে মা রাশেদা বেগম (৫৫), বাবা আবদুল হাকিম (৬০) ও আপন ছোটভাই আবু তাহের (২৫) গুরুতর আহত হয়েছেন।  রোববার সকাল ১০টার দিকে  সখীপুর উপজেলার মহানন্দপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত তিনজনকেই বেলা ১১টার দিকে প্রথমে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে গুরুতর আহত বাবা ও ভাইকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনজনকে ছুরি দিয়ে আঘাতকারী রাশিদুল ইসলামকে (৩৫) প্রতিবেশীরা মারধর করে বাড়িতে বেধে রেখেছে।

এলাকাবাসী জানায়, রাশিদুল দুটি বিয়ে করলেও একটিও টেকেনি। সে একটি গাভি লালন পালন করে সংসার চালায়। রোববার সকালে সে তাঁর মাকে ওই গাভি দোয়াতে (দুধ সংগ্রহ করা) বলে। মা ওই গাভি দোয়াতে গেলে লাফালাফি করার কারণে তিনি দোয়াতে পারেনি। সকাল ১০টার দিতে রাশিদুল জানতে পারে তাঁর গাভিটি দোয়ানো হয়নি। এ কারণে সে ক্ষিপ্ত হয়ে মাকে মারধর করে। মাকে মারধরের খবর পেয়ে ছোটভাই আবু তাহের এগিয়ে এলে রাশিদুল ছুরি দিয়ে ছোটভাইয়ের বুকের মধ্যে ঘা দেয়। এরপর বাবা আবদুল হাকিম এগিয়ে এলে তাঁকেও ছুরি দিয়ে বুকে ও হাতে আঘাত করে। এরপর রাশিদুলের ছুরির আঘাতে তাঁর মায়ের বাহু ও একটি আঙুলে ক্ষত হয়ে রক্ত ঝরে।
পরে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আহত তিনজনকে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অবস্থা গুরুতর দেখে আবু তাহের ও আবদুল হাকিমকে চিকিৎসকরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে।

সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আহত আবু তাহেরের বুকের বাঁ পাশে ছুরির মারাত্মক আঘাত রয়েছে। এছাড়াও বাবা আবদুল হাকিমের বাঁ পাশের বুকে ও বাঁ হাতে আঘাত লেগেছে। মা রাশেদা বেগমকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

রাশিদুলের চাচাতো ভাই বছির উদ্দিন বলেন, রাশিদুলের মাথায় একটু সমস্যা আছে। তবে এ ধরনের ঘটনা ঘটাবে তা কখনো কেউ আশা করেনি। রাশিদুলকে প্রতিবেশীরা মারধর করে বাড়িতেই বেধে রেখেছে।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন জানান, এ ঘটনায় থানায় কেউ জানায়নি।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc