Spread the love

প্রথম কন্ঠ ডেস্ক:

সুপ্রিম কোর্টের এফিডেভিট শাখার সব কর্মকর্তা কর্মচারীকে বদলি করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) সকালে অনিয়মের অভিযোগে তাদের বদলি করা হয় বলে হাইকোর্ট সূত্রে জানা গেছে।

এর আগে গতকাল সোমবার সকালে একটি মামলার শুনানিকে কেন্দ্র করে পাঁচ সদস্যের আপিল বেঞ্চে প্রধান বিচারপতি সুপ্রিম কোর্টের এফিডেভিট শাখায় সিসি ক্যামেরা বসানোর পরও অনিয়ম বন্ধ করতে না পারায় হতাশা প্রকাশ করেন।

ওই সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

নির্ধারিত মামলার শুনানিতে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আদালতকে জানান, একটি মামলা সোমবার তিন নম্বর সিরিয়ালে আপিল বিভাগের কার্যতালিকায় থাকার কথা ছিল। কিন্তু অদৃশ্যভাবে তা ৮৯ নম্বর সিরিয়ালে গেছে। কীভাবে গেল তা আপিল বিভাগের কাছে জানতে চেয়ে তিনি বলেন, অনেকেই মামলার তালিকা ওপর-নিচ করে কোটিপতি বনে গেছেন।

এ সময় প্রধান বিচারপতি বলেন, এফিডেভিট শাখা কক্ষে সিসি ক্যামেরা বসিয়ে দুর্নীতি বন্ধ করা যাচ্ছে না। এখন সবাই বাইরে এসে এফিডেভিট করে। সিসি ক্যামেরা বসিয়েও অনিয়ম রুখা যাচ্ছে না।

প্রধান বিচারপতি বলেন, রাষ্ট্রপক্ষের অনেক আইনজীবীও আদালতে আসেন না। বেতন বেশি হওয়ার কারণে এমন হচ্ছে। বেতন কম হলে তারা ঠিকই কষ্ট করে আদালতে আসতেন।

এরপর প্রধান বিচারপতি তাৎক্ষণিক এক আদেশে ডেপুটি রেজিস্ট্রার মেহেদী হাসানকে আপিল বিভাগে তলব করেন। তবে মামলার সিরিয়াল করা নিয়ে মেহেদী হাসানের ব্যাখ্যায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ। পরে ডেপুটি রেজিস্ট্রারকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেন প্রধান বিচারপতি।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc