সুবিধাবাদীরা দলে ঢুকে উইপোকার মতো সব খেয়ে ফেলে : সেতুমন্ত্রী

সুবিধাবাদীরা দলে ঢুকে উইপোকার মতো সব খেয়ে ফেলে : সেতুমন্ত্রী

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক:

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমাদের সুবিধাবাদী, খারাপ লোকের দরকার নেই। এরা দলে ঢুকে উইপোকার মতো সব খেয়ে ফেলে।

রোববার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে বরিশাল মহানগরীর ঐতিহাসিক বঙ্গবন্ধু উদ্যানে মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এসময় বিএনপির নেতৃত্বের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি এখন মরা গাঙে পরিণত হয়েছে। স্রোতহীন এই গাঙে আর কখনো জোয়ার আসবে না।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি খালেদার জিয়ার দুই বছরের কারাভোগের ২ মিনিটের জন্যও আন্দোলন সংগ্রাম করতে পারেনি। তারা শুধু দলীয় আবাসিক অফিসে প্রেস কনফারেন্স করছে। জনগণ এখন তাদের আন্দোলন সংগ্রাম প্রত্যাখ্যান করেছে। তাই বলা যায় বিএনপির নেতৃত্ব মরা গাঙে আর কোনো দিন জোয়ার আসবে না।

তিনি বলেন, বিএনপি এখন নালিশী পার্টিতে পরিণত হয়েছে। দেশ-বিদেশে নালিশ করে বেড়াচ্ছে। কেননা তাদের এখন নেতৃত্ব সংকট দেখা দিয়েছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি এখন অস্তিত্ব সংকটে। এদের পরিণতি হবে মুসলিম লীগের মত।

সম্মেলনের উদ্বোধক আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, প্রধান বক্তা জাতীয় নির্বাহী কমিটির জ্যেষ্ঠ সদস্য আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ, বিশেষ অতিথি দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, আইন বিষয়ক সম্পাদক, গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহান আরা আব্দুল্লাহ প্রমুখ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলালের সভাপতিত্বে সম্মেলন সঞ্চালনা করেন বরিশাল সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ।

সম্মেলনে বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি তালুকদার মোঃ ইউনুসসহ দলের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর সর্বশেষ বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই সম্মেলনে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে শওকত হোসেন হিরণ এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে অ্যাডভোকেট আফজালুল করিম নির্বাচিত হয়েছিলেন।

পরে শওকত হোসেন হিরণ মারা গেলে ২০১৬ সালে ২০ অক্টোবর মহানগর আওয়ামী লীগের ৭১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত হয়। ওই কমিটিতে অ্যাডভোকেট গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলালকে সভাপতি, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক এবং সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহকে যুগ্ম সম্পাদক করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc