শিরোনাম:
সখীপুরে মানব কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ আশরাফ পাহেলী’র আবেগ গন স্ট্যাটাস আশরাফ পাহেলী’র আবেগ গন স্ট্যাটাস সখীপুরে সৌদি ফেরত স্বামীর গোপনাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী!  টাঙ্গাইলে মৎস্যজীবী দলের সাবেক সভাপতি মরহুম ইসমাইল হোসেনের রুহের মাগফেরাত কামনা ও দোয়া সাংবাদিক মোসলেম আবু শফীর ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ জাতীয় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল টাঙ্গাইল জেলা মৎস্যজীবী দলের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক সভাপতি হাফেজ ইসমাইল হোসেনের ইন্তেকাল সিরাজগঞ্জের যুবদলের নেতা আকবর আলীকে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে যুবদলের উদ্যোগে বিক্ষোভ বাসাইলে এতিমদের মাঝে শিক্ষা ভাতা ও শীতবস্ত্র বিতরণ
প্রাথমিক শিক্ষিকা মায়ের বেহায়াপনা, মেয়ের সংবাদ সম্মেলন প্রকাশ

প্রাথমিক শিক্ষিকা মায়ের বেহায়াপনা, মেয়ের সংবাদ সম্মেলন প্রকাশ

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: গর্ভধারিণী মায়ের পরকীয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে মেয়ে মাইমুনা আক্তার তানহা। বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ সময় তানহার বাবা সুলতান মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন। |আরো খবর প্রাথমিকে পর্যায়ক্রমে জারি হবে নতুন নির্দেশনা প্রশ্নফাঁসের দায়ে প্রাথমিকের ৩ শিক্ষক বরখাস্ত ১ জানুয়ারি থেকে প্রাথমিকে বদলি যে পদ্ধতিতে সংবাদ সম্মেলনে তানহা বলেন, আমি একজন নাবালিকা। আমার মা মোছা. শাহনাজ আক্তার (৩৩) বাসাইল উপজেলার বর্ণি কিশোরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা। আমার বাবা প্রবাসে থাকার সময় আমার মায়ের পূবালী ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে ৫৮ লাখ ৯৩ হাজার ৭৭২ টাকা পাঠিয়েছেন। এ ছাড়া মাকে বাবা বিভিন্ন সময়ে সর্বমোট ১৬ ভরি স্বর্ণালংকার ও সখীপুর মৌজায় জমি কিনে দিয়েছেন। আমার নানার বাড়িতে দুটি টিনের ঘরও নির্মাণ করে দেন। আমার বাবা বিদেশে থাকা অবস্থায় টাঙ্গাইল সদর উপজেলার চরদিঘুলিয়া গ্রামের হাসান মাস্টারের ছেলে মনিরুজ্জামান মামুনের (মাসুম) সঙ্গে আমার মায়ের পরকীয়া সম্পর্ক হয়। পরে সেই বিষয়টি আমি জানার পর মাকে ওই সম্পর্ক থেকে বিরত থাকতে বললে একাধিকবার আমাকে মারধর করে। নানাভাবে বুঝিয়ে কোনো লাভ হয়নি। গত ৮ নভেম্বর আমার মা ২০ লাখ টাকা ও ১৬ ভরি স্বর্ণ নিয়ে এবং আমার ছোট ভাই আড়াই বছরের আদিল আহানাফকে নিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। আমি ও আমার বাবা বিভিন্ন এলাকা এবং আত্মীয়ের মাধ্যমে খোঁজ নিয়ে জানতে পারি মা মনিরুজ্জামানের মামুনের সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ করার পর থেকে মনিরুজ্জামান মামুন বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মাধ্যমে আমাদের হুমকি, ধামকি দিয়ে আসছে। আমি মামুনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। আমার মাকে আমি ফিরে পেতে চাই। মাকে নিয়ে আগের মতো আমরা সুখের সংসার করতে চাই। বিষয়টি টাঙ্গাইল-৮ (বাসাইল-সখীপুর) আসনের এমপি জোয়াহেরুল ইসলাম, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, বাসাইলের ইউএনও, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি, ৩০ নং বর্ণি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বরাবর আবেদন করেও কোনো সমাধান হয়নি। পরবর্তীতে আমার বাবা বাদি হয়ে টাঙ্গাইল জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বাসাইল থানা আমলি আদালতে মামলা করেন।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc