সখীপুরে বসতবাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর আহত ১

সখীপুরে বসতবাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর আহত ১

সখীপুর প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের সখীপুরে বসতবাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার কাকড়াজান ইউনিয়নের ভাতগড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। হামলায় বাধাঁ দিতে গেলে ওই বাড়ির মালিক ফাহিমা খাতুন (৪৮) আহত হন। আহত ফাহিমা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন। এ ঘটনায় সখীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ভাতগড়া গ্রামের মৃত আবু তাহেরের ছেলে বারেক মিয়া প্রায় ৩০ বছর আগে জামালহাটগুরা গ্রামের ময়েজ আলীর মেয়ে ফাহিমা খাতুনকে বিয়ে করেন। এ দের ঘরে ২ ছেলে ও ১ মেয়ে রয়েছে। গত ৪ বছর আগে বারেক বিদেশ থাকা অবস্থায় সিলেটের এক নারীর সাথে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। পরে ফাহিমাকে তালাক দিয়ে ওই নারীকে বারেক বিয়ে করেন। ফাহিমা অন্যের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করে বড় সন্তান ফরিদ হোসেনকে সৌদি আরব পাঠিয়েছেন। সম্প্রতি বারেক মালয়েশিয়া থেকে ছুটিতে আসেন। ছুটিতে এস ফাহিমাকে বাড়ি থেকে তাঁড়াতে পরিকল্পনা করেন। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার সকালে বারেক ও তাঁর সাঙ্গপাঙ্গরা মিলে ফাহিমার বসত ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে।

একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী জানায়, প্রভাবশালী ছোরহাব ও বারেকের নেতৃত্বে এ হামলা হয়েছে।

ভুক্তভোগি ফাহিমা খাতুন বলেন, অনেক কষ্ট করে আমি সন্তানদের মানুষ করেছি। তাদের বাবা আমাকে তালাক দিলেও সন্তানরা আমাকে ছাড়েনি। যে কারণে আমি চলে যেতে পারেনি। আমাকে ও সন্তানদের তাঁড়ানোর জন্য ছোরহাব ও বারেক মিয়া বসতবাড়ীতে সন্ত্রাসী দিয়ে হামলা ও ভাংচুর চালিয়ে স্বর্ণ ও নগদ টাকা লুট করে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে ছোরহাব আলী বলেন, গত কয়েকদিন আগে ওই নারী কোর্টে একটি মামলা করেছে। এ কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে হয়তো আমার ভাই হামলা করতে পারে। তবে আমি এ হামলার সাথে জড়িত না।

সখীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) বদিউজ্জামান বলেন, হামলার বিষয়ে দু’পক্ষই লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc