পুলিশের গাড়িতে কেন্দ্রে গেল রামুর দুর্গমের পরীক্ষার্থীরা

পুলিশের গাড়িতে কেন্দ্রে গেল রামুর দুর্গমের পরীক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজারের রামুর দুর্গম ইউনিয়ন হচ্ছে গর্জনিয়া ও কচ্ছপিয়া। এ দুটি ইউনিয়নের শিক্ষার্থীদের এসএসসি পরীক্ষা দিতে হয় বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি ছালেহ আহমদ সরকারি উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে। সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) থেকে শুরু হয়েছে এসএসসি পরীক্ষা। সোমবার বসে গর্জনিয়া বাজারের হাট। বাজারের দিন সৃষ্টি হয় তীব্র যানজট। বিষয়টি মাথায় রেখে গর্জনিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের দূরবর্তী পরীক্ষার্থীদেরকে পুলিশের গাড়িতে করেই পৌঁছে দেয়া হয়েছে পরীক্ষাকেন্দ্রে। এই দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত পরিদর্শক মো. আনিছুর রহমান। এটি বিরল ও পুলিশের মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বলছেন স্থানীয়রা।

পুলিশ পরিদর্শক মো. আনিছুর রহমান বলেন; ‘পুলিশিংয়ের বাইরেও আমাদের অনেক কাজ করতে হয়। আর শিক্ষার্থীরা হলেন জাতির ভবিষ্যত। তাই গর্জনিয়া ইউনিয়ন বিট পুলিশিং ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরীর অনুরোধে আমার নিজের গাড়িতে করেই এসএসসি পরীক্ষার্থীদেরকে পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছে দেয়া হয়েছে।’ গর্জনিয়া উচ্চবিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী আলফাজ উদ্দিন, আফিফা, হালিমা আক্তার ও খাইফা মনি জানান; পরীক্ষার প্রথম দিন বিদ্যালয়ের সামনে পুলিশের গাড়ি দেখে আমাদের সাহস বেড়ে যায়। ওই গাড়িতে করেই যথাসময়ে বিনামূল্যে কেন্দ্রে পৌঁছাতে পেরেছি। এটি আমাদের জন্য অনেক সৌভাগ্যের। গর্জনিয়া ইউনিয়ন বীট পুলিশিং ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন; ‘পুলিশিং নিয়ে অনেক নেতিবাচক কথা প্রচলিত আছে। সোমবারের ঘটনার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেক ইতিবাচক কথা হচ্ছে পুলিশ নিয়ে। যেসব শিক্ষার্থীরা গাড়িতে করে পরীক্ষা কেন্দ্রে গেছে তাদের মধ্যে কেউ ভবিষ্যতে ভালো পুলিশ কর্মকর্তাও হতে পারে। প্রত্যক্ষদর্শী অভিভাবকরা পুলিশের এমন আচরণে মুগ্ধতা ব্যক্ত করেন।’

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc