শিরোনাম:
ড্রামের লেভেল পরিবর্তন করে বেশি দামে অ্যাডমিক্সার বিক্রির অভিযোগ ওমিক্রন ঠেকাতে ডাবল মাস্ক পরার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের নাগরপুরে কম্বল বিতরণ করলেন রিসোর্স টিচার(ইংরেজি বিভাগ) ডা.এম.এ.মান্নান নাগরপুরে মুকতাদির হোমিও চিকিৎসা কেন্দ্রের উদ্যোগে শীত কম্বল বিতরণ টাংগাইলে দৈনিক সংগ্রাম উপজেলা সংবাদদাতাদের নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত সখীপুরে সাংবাদিক মামুনকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সংবর্ধনা সখীপুরে উদ্বেগজনক ভাবে বেড়েই চলেছে মোটরসাইকেল দিয়ে ছিনতাই টাঙ্গাইলে দুই ট্রাকের সংঘ‌র্ষে আগুন, চালকসহ দগ্ধ ২ ৩৩ জনের মরদেহ সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে :: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪০ দেশকে মুক্ত করতে হবে : মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর
জনগণের আস্থা ও বিশ্বাসের জায়গা হবে থানা : আইজিপি

জনগণের আস্থা ও বিশ্বাসের জায়গা হবে থানা : আইজিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রথম কণ্ঠ :

বাংলাদেশের প্রত্যেক থানা আস্থা ও বিশ্বাসের জায়গা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. জাবেদ পাটোয়ারী।

তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের প্রত্যেক থানা হবে আস্থা ও বিশ্বাসের জায়গা। সেই আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনের জন্য পুলিশকে কাজ করতে হবে। আমরা মানুষের স্বপ্নের পুলিশ হতে চাই, জনগণের পুলিশ হতে চাই, জনতার পুলিশ হতে চাই।

আইজিপি বলেন, বর্তমানে পুলিশের সব উদ্যোগ আমাদের দেশের জনগণকে ঘিরে। পুলিশের সর্বস্তরের কর্মকর্তাদের জনগণের হয়ে কাজ করতে হবে।

বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে কক্সবাজার জেলা পুলিশের বার্ষিক পুলিশ সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে আইজপি এ সব কথা বলেন।

ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, আগের চেয়ে পুলিশের প্রতি মানুষের দিন দিন আস্থা ও বিশ্বাস বাড়ছে। পুলিশের প্রতি যে অনীহা ছিল, সেটা এখন আর নেই। পুলিশকে জনতার কাছে যেতে হলে এটাই বেশি প্রয়োজন।

আইজিপি বলেন,পুলিশকে জনতারই হতে হবে, জনগণ যেন আস্থা পায়, বিশ্বাস পায় এবং পুলিশের কাছে গিয়ে দাঁড়াতে পারে। সে লক্ষ্যেই বর্তমানে পুলিশের সব কর্মকাণ্ডে জনতাকেই সম্পৃক্ত করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ২০২০ পুলিশের জন্য বিশেষ বছর। ‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে নেওয়া হয়েছে বিভিন্ন কর্মসূচি। এরমধ্যে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ চালু হওয়ায় মানুষের মাঝে একটা আত্মবিশ্বাস এসেছে। কোথাও কেউ কোনো অন্যায় দেখলেই সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে ফোন করছে এবং পুলিশ সেখানে পৌঁছে যাচ্ছে, ব্যবস্থা নিচ্ছে।

‘৯৯৯ নম্বর চালু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত দুইকোটি মানুষ সেবা চেয়েছে। তার মধ্যে ৮-৯ লক্ষ মানুষকে সেবা প্রদান করা হয়েছে। এতে বড় বড় অপরাধ সংগঠিত হওয়ার আগে পদক্ষেপ নিয়েছে পুলিশ।’

পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের নতুন উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) খন্দকার গোলাম ফারুক ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. ইকবাল হোসাইনের সঞ্চলানায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য আলহ্বাজ সাইমুম সরওয়ার কমল, ট্যুরিস্ট পুলিশের এসপি জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক পৌরমেয়র মুজিবুর রহমান, জেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি তোফায়েল আহমদ প্রমুখ বক্তব্য দেন।

ক্রীড়া অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বিশিষ্ট আবৃত্তিকার জসীম উদ্দিন বকুল ও অধ্যাপক পারিয়েল সামিহা শারিকা।

প্রথম কণ্ঠ/এসএম

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc