সখীপুরে প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত

সখীপুরে প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত

Spread the love

এস এম জাকির হোসেন : করোনা আক্রান্ত ঢাকার এক হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মী সখীপুরের নিজ বাড়িতে চারদিন থেকে গেলেন। গতকাল রোববার ওই স্বাস্থ্যকর্মী ঢাকায় ফিরে তাঁর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি হয়েছেন। এ ঘটনায় সখীপুরে দাড়িয়াপুর গ্রামে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন ওই গ্রামের ১০ বাড়ি লকডাউনের ঘোষণা দিয়েছেন। আজ সোমবার বেলা ৩টায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবদুস সোবহান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
রাজধানী ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজেজেস অ্যান্ড ইউরোলোজির একজন চিকিৎসক জানান, করোনা আক্রান্ত ওই স্বাস্থ্যকর্মী হাসপাতালের একজন ওয়ার্ড বয়। কয়েকদিন আগে এ হাসপাতালের দুইজন রোগীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। ওই দুটি ওয়ার্ডের সব চিকিৎসক ও রোগীদের সংস্পর্শে আসা স্বাস্থ্যকর্মীদের গত বুধবার নমুনা সংগ্রহ করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে পাঠানো হয়। গত শনিবার ফলাফলে শুধু ওই স্বাস্থ্যকর্মীর করোনা ‘পজেটিভ’ পাওয়া যায়। পরে ওইদিনই ওই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ওই ব্যক্তিকে খোঁজাখুঁজি শুরু করে। পরে তাঁরা জানতে পারে নমুনা দিয়েই ওই স্বাস্থ্যকর্মী গ্রামের বাড়ি সখীপুরে বেড়াতে গেছেন। হাসপাতালের ফোন পেয়ে গতকাল রোববার করোনা আক্রান্ত ওই স্বাস্থ্যকর্মী তাঁর কর্মস্থল ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজেজেস অ্যান্ড ইউরোলোজি হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাগে ভর্তি হন।
ওই রোগীর গ্রামের বাসিন্দা ও দাড়িয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম শামীম জানান, গত বুধবার ঢাকায় নমুনা দিয়েই সে সখীপুরের নিজ বাড়িতে চলে আসেন। চারদিন বাড়ি থেকে গতকাল রোববার বিকেলে সে তাঁর কর্মস্থল ঢাকার ওই হাসপাতালে চলে যান। যে সিএনজিচালিত অটোরিকশাযোগে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গোড়াই স্টেশনে গিয়ে নেমেছেন সেই অটোরিকশার চালকের বাড়িও লক ডাউন করা হচ্ছে।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবদুস সোবহান জানান, সখীপুরে এ পর্যন্ত ৪৭জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আজ দুপরে ১২টা পর্যন্ত ৩৯জনের নমুনার ফলাফল আমাদের কাছে এসেছে। এরমধ্যে কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হননি। তবে ওই স্বাস্থ্যকর্মীর অজ্ঞতার কারণে সখীপুরে করোভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার সম্ভবনা তৈরি হয়েছে।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন বলেন, ওই রোগীর সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের বাড়িঘর লকডাউন করা হয়েছে।

প্রথমকণ্ঠ / এস এম

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc