চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে নির্মিত হচ্ছে ভারত সরকারের অর্থায়নে কলেজ ভবন

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে নির্মিত হচ্ছে ভারত সরকারের অর্থায়নে কলেজ ভবন

Spread the love

মো: আবু শাহেদ, হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের হাটহাজারী পৌরসভাস্থ আলীপুর রহমানিয়া স্কুল ও কলেজে ভারত সরকারের অর্থায়নে একটি ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে।প্রতিষ্ঠানটির পাঁচ তলা বিজ্ঞান ভবনের নিচতলা নির্মাণের কাজ ২০১৭ সালে উদ্বোধন করেন ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার শ্রী সোমনাথ হালদার। ওই সময় একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) এক ভার্চুয়াল আয়োজনে ওই কলেজের বিজ্ঞান ভবন উদ্বোধনের কথা জানিয়েছে ঢাকায় ভারতীয় হাই কমিশন।

ভার্চুয়াল আয়োজনে প্রধান অতিথি তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, ‘ভারত সরকার বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর থেকে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অব্যাহতভাবে ভূমিকা রেখে চলেছে, বর্তমানে আমাদের দুই দেশের মধ্যে বহুমাত্রিক সহযোগিতা চলমান আছে। এই স্কুলের ভবন নির্মাণের মধ্য দিয়ে স্কুলের শিক্ষার্থীরা যেমন উপকৃত হবে, পুরো জনপদও উপকৃত হবে। বিশেষ করে বিজ্ঞান ভবন নির্মাণের পাশাপাশি কম্পিউটারসহ অন্যান্য শিক্ষাসামগ্রীর জন্যও ৭ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।’

অনুষ্ঠানের সভাপতি ভারতের হাই কমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ বলেন, ‘বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আজ এক নতুন উচ্চতায় পৌঁছে গেছে। উভয় দেশ বিস্তৃত ক্ষেত্রজুড়ে একে অন্যের প্রতি সহযোগিতা প্রসারিত করেছে। সরকারি পর্যায়ে মিথস্ক্রিয়া ছাড়াও ভারত ‘হাই ইমপ্যাক্ট কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট’-এর মাধ্যমে সামাজিক ও মানবিক উন্নয়নের দিকগুলো অন্তর্ভুক্ত করে বিভিন্ন সক্ষমতা বৃদ্ধি প্রকল্প গ্রহণ করছে, প্রত্যক্ষভাবে যার সুফল পাচ্ছে বাংলাদেশের স্থানীয় জনগণ।’

ভার্চুয়াল এই আয়োজনে চট্টগ্রামের হাটহাজারী আসনের সংসদ সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের সহকারী হাই কমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জিও বক্তব্য দেন।

হাটহাজারী আলিপুর রহমানিয়া স্কুল এন্ড কলেজ এর অধ্যক্ষ সাইফুর রহমান বলেন, ভারত সরকারের প্রায় ৪৪ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত আমাদের স্কুল এন্ড কলেজের বিজ্ঞান ভবনটি অত্যন্ত মজবুত করে নির্মাণ করা হয়েছে। এখানে আমরা কোয়ালিটির ব্যাপারে কোন কম্প্রোমাইজ করি নাই। বিশেষ করে বিএসআরএমের লোহা, রুবি সিমেন্টসহ অত্যন্ত ভালো উপাদান গুলো এখানে ব্যবহার করা হয়েছে। আমাদের চট্টগ্রামের সরকারী হাই কমিশনার শ্রী অনিন্দ্য ব্যানার্জি মহোদয় এই বিল্ডিং পরিদর্শনে অত্যন্ত সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এছাড়াও আমাদের কম্পিউটার ল্যাব প্রদান করা হয়েছে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে সেটা আমরা আমাদের স্কুল ও কলেজ শাখায় ব্যাপকভাবে ব্যবহার হচ্ছে। সরকারি বিভিন্ন প্রশিক্ষণও ব্যবহার করতেছি ও এলাকার বেকার যুবকদের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। বিশেষত এই যে ভারত সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগটা আমি মনে করি এলাকার মানুষকে অসম্প্রদায়িক করবে এবং বিজ্ঞানমনস্ক করবে, গ্লোবাল পরিস্থিতি তৈরিতে এটা ভারত সরকারের এক বিশাল অবদান বলে আমি মনে করি। এ ধরনের একটা এলাকায় সত্যি কারের বিনিয়োগটা খুবই গ্রহণযোগ্য হয়েছে বলে আমি ভারত সরকারকে ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।

প্রথমকণ্ঠ / এস এম

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc