শিরোনাম:
কাশি দিলেই লাল কার্ড! | প্রথমকণ্ঠ

কাশি দিলেই লাল কার্ড! | প্রথমকণ্ঠ

এস এম জাকির হোসেন : করোনাভাইরাসের কারণে কত নিয়ম-কানুনেই না পরিবর্তন আসছে। ফুটবল এবং ক্রিকেটে এরই মধ্যে করোনার কারণে বেশ কিছু নিষেধাজ্ঞা, পরিবর্তনের নিয়ম জারি করা হয়েছে। তবে, ফুটবলে করোনা আইনে বেশ কড়াকড়ি আরোপ করতে যাচ্ছে ইংলিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এফএ)।

নতুন নিয়মে রেফারিকে দেয়া হচ্ছে, মাঠে সর্বোচ্চ ক্ষমতা প্রয়োগের অধিকার। অর্থ্যাৎ, ম্যাচ চলাকালীন সময়ে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড় কিংবা ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে থাকা রেফারিদের সামনে ইচ্ছাকৃতভাবে কাশি দিলেই বিপদ। সে ক্ষেত্রে ওই খেলোয়াড়কে সরাসরি লাল কার্ড দেখাতে পারবেন রেফারি। তবে অনিচ্ছাকৃতভাবে কেউ যদি কাশি দিয়ে ফেলেন, সে ক্ষেত্রে অবশ্য কোনোপ্রকার শাস্তি দেয়া হবে না। ইংলিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে এই নির্দেশিকাই জারি করা হয়েছে।

সেই নির্দেশিকায় স্পষ্ট বলা হয়েছে, প্রতিপক্ষের কোনো খেলোয়াড় বা ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্বে থাকা কোনো রেফারির সামনে কোনো খেলোয়াড় ইচ্ছাকৃতভাবে কাশলে, রেফারি মনে করলে তখনই ওই খেলোয়াড়কে লাল কার্ড দেখাতে পারেন। মাঠের মধ্যে অশালীন আচরণের অন্তর্গত ধরা হবে এই অপরাধকে।

তবে এর পাশাপাশি বলা হয়েছে, রেফারি যদি মনে করেন দোষ তেমন গুরুতর নয়, সে ক্ষেত্রে কেবলমাত্র হলুদ কার্ড দেখিয়ে সতর্ক করা হবে অভিযুক্ত খেলোয়াড়কে। তবে সেখানে স্পষ্ট জানানো হয়েছে, কোনো খেলোয়াড় অনিচ্ছাকৃত এই ভুল করে থাকলে রেফারি তাকে যেন শাস্তি না দেন। এ ছাড়াও খেলোয়াড়রা যাতে মাঠের যত্রতত্র থুতু না ফেলেন, সে ব্যাপারেও সতর্ক থাকতে হবে রেফারিকেই।

করোনার কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর মে-জুন থেকে চালু হয়েছে ইউরোপের বিভিন্ন দেশের ফুটবল লিগ। ইতিমধ্যে প্রায় সব লিগ শেষও হয়ে গেছে। শুধু বাকি রয়েছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। তবে কোনও টুর্নামেন্টেই মাঠে দর্শকদের প্রবেশাধিকার দেওয়া হয়নি। পাশাপাশি দলগুলো এবং খেলোয়াড়দের জন্য চালু করা হয়েছে একাধিক স্বাস্থ্যবিধি। এরই একটি হল যত্রতত্র কাশি না দেয়া। কারণ কাশির মাধ্যমে করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা সবসময় বেশি থাকে।

প্রথমকণ্ঠ / এস এম

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc