সখীপুরে ইউপি নির্বাচনের জামানত হারাচ্ছেন চারজন চেয়ারম্যান প্রার্থী

সখীপুরে ইউপি নির্বাচনের জামানত হারাচ্ছেন চারজন চেয়ারম্যান প্রার্থী

সখীপুর প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইলের সখীপুরে ইউপি নির্বাচনের জামানত হারাচ্ছেন চারজন চেয়ারম্যান প্রার্থী। নির্ধারিত ভােটের চেয়ে কম ভােট  পাওয়ায় বহেড়াতৈল, যাদবপুর ও  বহুরিয়া ইউনিয়নের চার প্রার্থী তাদের জামানত ফিরে পাচ্ছেন না বলে রিটার্নিং কর্মকর্তা সূত্রে জানা গেছে।

নিয়ম অনুযায়ী নির্বাচনে  মনােনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময়  প্রত্যেক প্রার্থীকে সরকারি কোষাগারে  ৫ হাজার টাকা করে জামানত দিতে  হয়। সেই জামানতের টাকা ফেরত  পেতে ওই ইউনিয়নের সব ভােটকেন্দ্রে  (কাস্টিং ভােট) পড়া মােট ভােটের ৮  ভাগের ১ ভাগ বা ১২ দশমিক ৫  শতাংশ ভােট পেতে হয়।

শুক্রবার সখীপুর  উপজেলার চারটি ইউপি নির্বাচনের  ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে,  বহেড়াতৈল ইউনিয়নের ইসলামি  আন্দোলনের প্রার্থী কামরুল হাসান  হাতপাখা প্রতীকে পেয়েছেন ৩২৬  ভােট। একই ইউনিয়নের জাতীয়  পার্টির প্রার্থী আলতাব হােসেন লাঙল  প্রতীকে পেয়েছেন ৯২ ভােট। ওই  ইউনিয়নে মােট কাস্টিং ভােট ১৫  হাজার ৬০৭ টি। যার ১২ দশমিক ৫  শতাংশ হয় ১ হাজার ৯৫০ ভােট। অন্যদিকে যাদবপুর ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাে. জাহিদুল ইসলাম চশমা প্রতীকে পেয়েছেন ৭৫৭ ভােট। ওই ইউনিয়নে মােট ভােট কাষ্টিং হয়েছে ১৭ হাজার ২০৬ টি। যার ১২ দশমিক ৫ শতাংশ হয় ২ হাজার ১৫০ ভােট। এ ছাড়া বহুরিয়া ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নিরঞ্জন বিশ্বাস আনারস প্রতীকে ১ হাজার ৯৬৯ ভােট পেয়েও জামানত হারাচ্ছেন। কারণ ওই ইউনিয়নের মােট কাষ্টিং ভােটের সংখ্যা ১৬ হাজার ৮৯৫ টি। যার ১২ দশমিক ৫ শতাংশ হবে ২ হাজার ১১২ ভােট।

এ বিষয়ে ওই তিন ইউপির দায়িত্বে থাকা রিটার্নিং কর্মকর্তা আতাউল হক জানান, যদি কোনাে চেয়ারম্যান প্রার্থী মােট কাষ্টিং ভােটের সাড়ে ১২ শতাংশের কম ভােট পান, তবে তিনি জামানত ফিরে পাবেন না।

সংবাদটি শেয়ার করতে এখানে ক্লিক করুন




All rights reserved © Prothom Kantho
Design BY Code For Host, Inc